নিজস্ব প্রতিবেদক: অনিয়ম-জালিয়াতি করে নিজেকে অধ্যক্ষ হিসেবে ঘোষণা করার অভিযোগ প্রমানিত হওয়ায় কাউনিয়া কলেজ এর ভারপ্রাপ্ত অধ্যক্ষ মুসা আহাম্মদকে সাময়িক বরখাস্ত করা হয়েছে। গত বুধবার (১৮ নভেম্বর) উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তার কার্যালয়ে কাউনিয়া কলেজে অধ্যক্ষ নিয়োগে অনিয়ম সংক্রান্ত তদন্ত প্রতিবেদনের প্রেক্ষিতে কলেজ পরিচালনা পর্ষদের এক জরুরী সভায় এ সিদ্ধান্ত নেয়া হয়। উত্তর জনপদের ঐতিহ্যবাহী কাউনিয়া কলেজে অর্থনীতি বিভাগের প্রভাষক পদে যোগদান করেন মুসা আহাম্মদ। এরপর নানা নাটকিয়তার মাঝে সুনামধন্য এ শিক্ষা প্রতিষ্ঠানটির ভারপ্রাপ্ত অধ্যক্ষ হিসেবে দায়িত্ব নেন তিনি। জানা গেছে, ভারপ্রাপ্ত অধ্যক্ষ মুসা আহাম্মদ ভারমুক্ত হওয়ার কাঙ্খিত স্বপ্নে সরকারি নিয়মনীতি না মেনে অনিয়ম-জালিয়াতির মাধ্যমে নিজেকে অধ্যক্ষ হিসেবে নিয়োগ প্রক্রিয়া সম্পন্ন করার পায়তারা করেন। কলেজ পরিচালনা পর্ষদের সাবেক সভাপতি বানিজ্য মন্ত্রী টিপু মুনশি এমপির প্রতিনিধি আলহাজ্ব আব্দুল মজিদ এ ঘটনায় লিখিত অভিযোগ করলে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা ও কলেজ পরিচালনা পর্ষদের সভাপতি মোছাঃ উলফৎ আরা বেগম ৩ সদস্যের একটি তদন্ত কমিটি করে প্রতিবেদন দিতে বলা হয়। উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা ও কলেজ পরিচালনা পর্ষদের সভাপতি জানান, তদন্ত প্রতিবেদনে ভারপ্রাপ্ত অধ্যক্ষ মুসা আহাম্মদ এর বিরুদ্ধে অভিযোগের প্রমান পাওয়ায় কলেজ গভর্নিং বডির মিটিং এ তাকে সাময়িক বরখাস্ত করা হয়। তাকে আগামী ১০ কার্যদিবসের মধ্যে এ ব্যাপারে লিখিত ব্যাখ্যা চেয়ে নোটিশ করা হয়েছে। তার বিরুদ্ধে কলেজ পরিচালনা পর্ষদের সিদ্ধান্ত মোতাবেক প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেয়া হবে বলেও জানান তিনি। এদিকে জাতীয় পর্যায় শ্রেষ্ঠ শিক্ষা প্রতিষ্ঠান কাউনিয়া কলেজ পরিচালনা পর্ষদের জরুরি সভায় কলেজের সহকারি অধ্যাপক ডক্টর শ্বাশত ভট্রাচার্যকে ভারপ্রাপ্ত অধ্যক্ষ হিসেবে দায়িত্বভার প্রদান করা হয়েছে বলে জানিয়েছে সংশ্লিষ্ট সূত্র।