সোনাগাজীতে ভাতিজিকে ধর্ষণের অভিযোগে আ.লীগ নেতা আটক

ফেনীর সোনাগাজীতে ভাতিজিকে ধর্ষণের অভিযোগে তমিজ উদ্দিন নয়ন নামে এক আওয়ামী লীগ নেতাকে আটক করেছে পুলিশ। সোনাগাজীর মতিগঞ্জ ইউনিয়নের ভাদাদিয়া গ্রামের ছানি মাঝির নতুন বাড়ি বাসিন্দা তমিজ উদ্দিন নয়ন ওই ভুক্তভোগীর সম্পর্কে চাচা (বাবার চাচাতো ভাই) হয়। তিনি স্থানীয় ওয়ার্ড আওয়ামী লীগের সভাপতি। পেশায় কাঠ ব্যবসায়ী।

বৃহস্পতিবার (৮ অক্টোবর) ওই ভুক্তভোগীর অভিযোগের ভিত্তিতে রাত ১১টার দিকে অভিযান চালিয়ে তাকে আটক করা হয়েছে বলে জানিয়েছেন সোনাগাজী থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি-তদন্ত) আাবদুর রহিম সরকার।

ওই কিশোরীর পারিবারিক সূত্রে জানা যায়, গত ১ অক্টোবর ওই কিশোরী সকালে প্রাইভেট পড়তে যাওয়ার সময় জোর করে বাজারের নিজ দোকানে নিয়ে ধর্ষণ করে চাচা নয়ন। তার ভয়ে মেয়েটি এতদিন মুখ খোলেনি। বৃহস্পতিবার সকালে ওই কিশোরী এ ব্যাপারে তার মাকে জানালে ঘটনাটি প্রকাশ পায়। এ নিয়ে এলাকায় তোলপাড় শুরু হয়। তবে নয়ন প্রভাবশালী বিধায় কেউ তার ব্যাপারে মুখ খুলতে রাজি হয়নি। পরে পরিবারের সদস্যরা থানায় গিয়ে অভিযোগ জানালে পুলিশ তাৎক্ষণিকভাবে অভিযান চালিয়ে তাকে আটক করে থানায় নিয়ে আসে।

জানা যায়, ধর্ষণের শিকার মেয়েটি স্থানীয় একটি স্কুলের ৭ম শ্রেণীর শিক্ষার্থী। তার বয়স ১৪ বছর। তার বাবা একজন কাঠুরে। তিনি গাছ কেটে জীবিকা নির্বাহ করেন। ঘটনার শিকার মেয়েটি জানায়, এ ঘটনা কারও কাছে প্রকাশ করলে তার বাবাকে নয়ন কাজ বের করে দেবে এবং তাকে মেরে ফেলার হুমকি দেয়।

এ ঘটনায় পুলিশের তাৎক্ষণিক ভূমিকার জন্য সহকারী পুলিশ সুপার সাইকুল ইসলাম ভূইয়া (সোনাগাজী সার্কেল) ও থানার পুলিশ সদস্যদের প্রতি সন্তুষ্টি ও কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করেছেন মেয়েটির বাবা।

সোনাগাজী পুলিশ পরিদর্শক (ওসি) সাজেদুল পশাল জানান, এ ঘটনায় ওই কিশোরীর মা বাদী হয়ে থানায় মামলা দায়ের করবেন। প্রক্রিয়া চলমান রয়েছে। তিনি আরও জানান, অভিযোগ পাওয়া মাত্রই থানার দ্বিতীয় কর্মকর্তা সাইফুদ্দিন ও এসআই নওশের কোরাইশি অভিযান চালিয়ে অভিযুক্তকে আটক করে থানায় নিয়ে এসেছেন।

Comments (০)
Add Comment