‘সরকার প্রতিবন্ধীদের প্রশিক্ষণের মাধ্যমে সম্পদে পরিণত করছে’

জাতীয় প্রতিবন্ধী দিবসের অনুষ্ঠানে ডিসি আসিব আহসান

- Advertisement -

নিজস্ব প্রতিবেদক
রংপুরের জেলা প্রশাসক আসিব আহসান বলেছেন, ‘প্রতিবন্ধীরা বোঝা নয়। তাদের যথাযথ প্রশিক্ষণ দিলে সম্পদে পরিণত করা সম্ভব। বর্তমান সরকার সে লক্ষ্যেই কাজ করছে। কারণ প্রশিক্ষণই প্রতিবন্ধীদের সম্পদে পরিণত করবে।’

বৃহস্পতিবার দুপুরে রংপুর টাউন হল মিলনায়তনে প্রতিবন্ধী দিবসের আলোচনা অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তৃতায় তিনি একথা বলেন। রংপুর জেলা প্রশাসন ও জেলা সমাজসেবা অধিদপ্তরের যৌথভাবে এই অনুষ্ঠানের আয়োজন করে।

আলোচনা অনুষ্ঠানে জেলা প্রশাসক বলেন, ‘প্রশিক্ষিত প্রতিবন্ধীর কেউই বেকার নেই। সরকার বিভিন্ন প্রশিক্ষণের মাধ্যমে প্রতিবন্ধীদের স্বাবলম্বী ও কর্মপ্রত্যয়ী করে তুলছে। কেউ যাতে বেকার না থাকে, এজন্য সমাজসেবা অধিদপ্তরসহ বিভিন্নভাবে প্রশিক্ষণ ও সহায়তা দেয়া হচ্ছে। প্রতিবন্ধীরাও দেশের উন্নয়নে ভূমিকা রাখছে।’

সমাজসেবা অধিদপ্তর রংপুরের উপ পরিচালক মোশাররফ হোসেনের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি ছিলেন, রংপুর মেট্রোপলিটন পুলিশের উপ-পুলিশ কমিশনার মহিদুল ইসলাম, রংপুর জেলা সিভিল সার্জন হিরম্ব কুমার রায়, সমাজসেবা অধিদপ্তরের বিভাগীয় উপ-পরিচালক অনিল চন্দ্র বর্মন ও সুইড বাংলাদেশ রংপুরের নির্বাহী সচিব সুশান্ত ভৌমিক।

এ সময় বক্তারা বলেন, আমাদের যুব সমাজ লেখাপড়া শেষ করে চাকরির প্রত্যাশা করে। আর প্রতিবন্ধীরা প্রশিক্ষিত হয়েই কাজে লেগে যায়। বেকার না থেকে দেশকে এগিয়ে নিতে আত্মপ্রত্যয়ী হতে হবে। শুধু চাকরি খুঁজলে হবে না। নিজেদেরকেও কর্মসংস্থান সৃষ্টি করতে হবে। অন্যকে চাকরি দেয়ার কথা ভাবতে হবে।

এদিকে আলোচনা অনুষ্ঠানের আগে বেলা এগারোটায় জেলা প্রশাসক কার্যালয় চত্বরে বেলুন উড়িয়ে ২৮তম আন্তর্জাতিক প্রতিবন্ধী দিবস ও ২১তম জাতীয় প্রতিবন্ধী দিবসের অনুষ্ঠানিকতা উদ্বোধন করা হয়। সেখান থেকে একটি র‌্যালী নগরীর গুরুত্বপূর্ণ সড়ক প্রদক্ষিণ করে টাউন হলে গিয়ে শেষ হয়।

দুপুর বারোটায় জেলা শিল্পকলা একাডেমিতে প্রতিবন্ধীদের চিত্রাঙ্কন প্রতিযোগিতা ও প্রতিবন্ধী সেবা ও সাহায্য কেন্দ্র সহায়তা উপকরণ বিরতণ করা হয়। পরে বেলা আড়াইটায় টাউন হল মিলনায়তনে মনোজ্ঞ সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানে অংশ নেন প্রতিবন্ধীরা।

Get real time updates directly on you device, subscribe now.

Leave A Reply

Your email address will not be published.