সব মানুষের সুন্দরভাবে বেঁচে থাকার অধিকার আছে: পাগলাপীরে বাণিজ্যমন্ত্রী

- Advertisement -

নিজস্ব প্রতিবেদক:
বাণিজ্যমন্ত্রী ও আওয়ামী লীগের কেন্দ্রীয় কমিটির অর্থ ও পরিকল্পনা বিষয়ক সম্পাদক বীর মুক্তিযোদ্ধা মো. টিপু মুনশি বলেছেন- জাতির জনক বঙ্গবন্ধুর সুযোগ্য কন্যা দেশরত্ন শেখ হাসিনা দেশের উন্নয়নের সকল শ্রেণির মানুষকে অংশিদারিত্ব করতে নিরলস ভাবে কাজ করে যাচ্ছেন। কোনো মানুষ অপরাধী হয়ে জন্মে না। দেশের সকল মানুষের সুন্দরভাবে বেচেঁ থাকার অধিকার আছে। এর পরেও পারিপার্শ্বিক ও নানা প্রতিকূলতার কারণে একজন মানুষ সমাজে অপরাধী হয়ে ওঠে । বিশেষ করে চুরি, ছিন্তাই মাদক, জঙ্গি সহ নানা অসামাজিক কার্যকলাপে জড়িয়ে পড়ে বিপদগামী হয়ে পড়ছেন। সেই সব মানুষদের স্বাভাবিক ভাবে বেঁচে থাকার জন্য আওয়ামীলীগ সরকারের মাননীয় প্রধান মন্ত্রী শেখ হাসিনা কর্মসংস্থান সৃষ্টি করে তাদেরকে পূর্নবাসন করে যাচ্ছেন।

রবিবার বিকালে রংপুর সদর উপজেলার পাগলাপীর হরিদেবপুর ইউনিয়ন পরিষদ মাঠে উপজেলা ও অত্র ইউপির আয়োজনে পেশাদার অপরাধীদের “আলোর পথে ফেরাতে” পূর্নবাসনের জন্য রিক্সা-ভ্যান ও প্রতিবন্ধিদের জন্য হুইল চেয়ার বিভিন্ন শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে আলমারী, ফ্যান এবং শিক্ষার্থীদের জন্য জ্যামিতি বক্স বিতরন অনুষ্ঠানের সুধী সমাবেশের প্রধান অতিথির বক্তব্যে টিপু মুনশি এসব কথা বলেন।

সদর উপজেলার চেয়ারম্যান মোছা. নাছিমা জামান ববির সভাপতিত্বে উক্ত অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি জেলা পুলিশ সুপার বিপ্লব কুমার সরকার, অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক মো. আরিফ হোসেন। শুভেচ্ছা বক্তব্য রাখেন সদর উপজেলার নির্বাহী অফিসার ইসরাত সাদিয়া সুমি, কোতয়ালী সদর থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) এবিএম সাজেদুল ইসলাম, হরিদেবপুর ইউনিয়নের সুযোগ্য চেয়ারম্যান ইকবাল হোসেন।

এ সময় মঞ্চে উপস্থিত ছিলেন- অতিরিক্ত পুলিশ সুপার আরিফ হোসেন, জেলা পরিষদ সদস্য সিরাজুল ইসলাম প্রামানিক, সদর উপজেলার ভাইস চেয়ারম্যান আলহাজ্ব মাসুদার রহমান মিলন, মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান কাজলী বেগম, চন্দনপাট ইউনিয়নের চেয়ারম্যান আমিনুর রহমান ও সদ্যপুষ্করনি ইউনিয়ন চেয়ারম্যান সোহেল রানা সহ আওয়ামীলীগ, যুবলীগ, স্বেচ্ছাসেবকলীগ, ছাত্রলীগ, জেলা-উপজেলা ইউনিয়ন নেতৃবৃন্দ সহ বিশিষ্ট জনরা।

সৌজন্যমুলক সাক্ষাতে হরিদেবপুর ইউপি চেয়ারম্যান মো. ইকবান হোসেন বলেন বিতরণকৃত উপকরণগুলো- হলো ১৩টি রিক্সা ভ্যান, ৩৭টি হুইল চেয়ার, ১৩টি আলমারী, ৭৯ টি সিলিং ফ্যান এবং ১৪২০টি জ্যামিতি বক্স। এর মধ্যে এডিপির অর্থায়ানে ১৩টি রিক্সা-ভ্যান বাকি উপকরনগুলো হরিদেবপুর ইউপির এলজিএসপি-৩ এর অর্থায়নে।

Get real time updates directly on you device, subscribe now.

Leave A Reply

Your email address will not be published.