মাহিগঞ্জ শ্রী শ্রী পরেশনাথ মন্দিরে জমে উঠছে রাস উৎসব

- Advertisement -

নিজস্ব প্রতিবেদক:
রংপুর নগরীর মাহিগঞ্জ শ্রী শ্রী পরেশনাথ মন্দিরে জমে উঠছে ভগমান শ্রী কৃষ্ণের রাস উৎসবের সংগীত ও নৃত্য প্রতিযোগিতা।

শনিবার রাতে অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি ছিলেন রংপুর রেঞ্জের ডিআইজি দেবদাস ভট্টাচার্য। বিশেষ অতিথি ছিলেন ভারতীয় সহকারী হাই কমিশনার রাজশাহী শ্রী সঞ্জীব কুমার ভাটী।

প্রধান অতিথি ডিআইজি দেবদাস ভট্টাচার্য বলেন- ধর্ম যার যার উৎসব সবার, আসুন মানব সেবার মাধ্যমে বাংলাদেশকে একটি উন্নতশীল দেশ গড়ে তুলি। রাস উৎসব শ্রী কৃষ্ণের দেবতার স্মরণে শৈশব থেকে সমগ্র জীবন কীর্তি ও কর্ম নিয়ে প্রতিমা তৈরী করা হয়েছে। এর মধ্যে দিয়ে হিন্দু ধর্মানুসারীরা ভগমান শ্রীকৃষ্ণের বৈচিত্র্যময় জীবনের মাহাত্বকে উপলদ্ধি করছে।

বক্তব্য রাখেন- রংপুর জেলা পূজা উর্যাপন পরিষদের সভাপতি বাবু সুব্রত সরকার মুকুল, সাধারণ সম্পাদক ধীমান ভট্টাচার্য, ইন্টারন্যাশনাল গ্রামার স্কুল আইজিএস রংপুর এর প্রতিষ্ঠাতা সভাপতি সেরাফুল হোসেন হিমেল, মন্দিরের সাধারণ সম্পাদক, বীর মুক্তিযোদ্ধা রাম কৃষ্ণ সোমানী(রামু), মাহিগঞ্জ থানার অফিসার ইনচার্জ আখতারুজ্জামান প্রধান, মাহিগঞ্জ প্রেসক্লাবের সভাপতি বাবলু নাগ।

অন্যন্যদের মধ্যে আরও উপস্থিত ছিলেন- মাহিগঞ্জ বালিকা বিদ্যালয় এন্ড কলেজের অধ্যক্ষ জাহানারা বেগম, রংপুর চেম্বার অব কমার্সের পরিচালক রবি সোমানী, সাতমাথা উন্নয়ন পরিষদের সাধারণ সম্পাদক সাংবাদিক কামরুজ্জামান সেলিম, সংগীত ও নৃত্য প্রতিযোগিতার পুরষ্কার বিতরনী অনুষ্ঠানের বিচারক ছিলেন রাষ্ট্রপতি পদকপ্রাপ্ত শিল্পী পিংকী নাগ, উওরবঙ্গের শিল্পীবাবলু মিয়া, বিশ্বনাথ মহন্ত। অনুষ্ঠানের সভাপত্বিত করেন শ্রী শ্রী পরেশনাথ মন্দিরের সহ-সভাপতি শ্রী তপন শর্মা।

বর্ণিল সাজে সজ্জিত রাস উৎসব প্রাঙ্গণে পরেশনাথ মন্দিরে বাড়তি আকর্ষণ হিসেবে যুক্ত হয়েছে রকমারী দোকানের মেলা। শিশুদের খেলনা, হস্তশিল্প ও কুটির শিল্পের পন্য মেলার দোকানসমূহের উল্লেখযোগ্য পণ্য। সেইসাথে বসেছে গ্রাম বাংলার ঐতিহ্যবাহী নাগর দোলা। লটারীর আয়োজন করা হয়েছে। প্রতিদিন হাজার মানুষের পদচারণায় মুখরিত হবে মন্দির প্রাঙন। নাম র্কীতন, প্রসাদ বিতরণের পাশাপাশি প্রতিদিন চলছে সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান।

দেশাত্ববোধক, ভক্তিমূলক, পালাগান, নাটক উপভোগ করতে শীতের রাতে যেন মানুষের কমতি নেই। মেলা সুষ্ঠু ও শান্তিপূর্ণ ভাবে উদযাপনের জন্য সার্বক্ষণিক বিদ্যুতের ব্যবস্থা ও আইন শৃংঙ্খলা বাহিনীর ব্যবস্থা করা হয়েছে। ব্যাপক উৎসাহ উদ্দীপনার মধ্য দিয়ে উদযাপিত হচ্ছে এ অঞ্চলের ৩৭তম এতিহ্যবাহী রাস উৎসব। চলতি মাসের ১৮তারিখ পর্যন্ত চলবে এই রাস উৎসব।

Get real time updates directly on you device, subscribe now.

Leave A Reply

Your email address will not be published.