মাহফুজুল-মামুনুল থেকে ওয়াকফ এস্টেটের মাদরাসা দখলমুক্ত

দেশের অন্যতম কওমি শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান জামি’আ রাহমানিয়া আরাবিয়া- ফাইল ফটো

দীর্ঘদিন পর ওয়াকফ এস্টেট অনুমোদিত দেশের অন্যতম কওমি শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান জামি’আ রাহমানিয়া আরাবিয়া সাত মসজিদ মাদরাসা দখলমুক্ত হয়েছে। 

হেফাজতে ইসলাম বাংলাদেশের সাবেক যুগ্ম মহাসচিব মামুনুল হক, তার ভাই মাহফুজুল হক ও তার পরিবার থেকে মাদরাসাটি সম্প্রতি দখলমুক্ত হয়।  

জানা গেছে, টানা দুই দশক মাদরাসাটি শায়খুল হাদিস আজিজুল হকের পরিবারের নিয়ন্ত্রণে ছিল। কিন্তু মামুনুল হক ও তার ভাই মাহফুজুল হকের একক আধিপত্যে মাদরাসার কমিটিতে থাকা সদস্যরা কোণঠাসা হয়ে পড়েন। অবশেষে আদালতের রায় ও জনরোষের চাপেই মাদরাসা ছাড়তে বাধ্য হন মাহফুজুল হক। 

স্থানীয় একটি সূত্র বলছে, মামুনুল হক ও মাহফুজুল হককে কোনোভাবেই পরামর্শ দিতে সম্মত হচ্ছেন না দেশের শীর্ষ আলেমরা।

এ প্রসঙ্গে মাহফুজুল হক বলেন, আমাদের এ প্রতিষ্ঠান ও ভবন ছাড়তে হবে। আমাদের দেশের শীর্ষ আলেমরা এ বিষয়টি নিয়ে কোনো পরামর্শও করছেন না।

তিনি আরো বলেন, মাদরাসার সব ফটকে তালা দিয়েছি। এখন শীর্ষ আলেমদের কাছে চাবি হস্তান্তর করবো।

জানা গেছে, ১৯৮৮ সালে ওয়াকফ সম্পত্তিতে গড়ে ওঠা জামি’আ রাহমানিয়া আরাবিয়া মাদরাসা ২০০১ সালে পূর্ণ নিয়ন্ত্রণে নেয় আজিজুল হকের পরিবার। আজিজুল হকের ছেলে মাহফুজুল হক ও মামুনুল হক মাদরাসাটি করায়ত্ত করেন বলে অভিযোগ রয়েছে। ওয়াকফ প্রশাসনে নিবন্ধিত মাদরাসা থেকে ওই সময় ৩৬ শিক্ষককে বিতাড়িত করা হয়। সেই সময় থেকে মাদরাসাটির পরিচালনার দায়িত্ব ফিরে পেতে আইনি লড়াই চালিয়ে যায় ওয়াকফ এস্টেট পরিচালনা কমিটি। ওয়াকফ প্রশাসনের পক্ষে আদালতের রায় ও আদেশ থাকার পরও এতদিন মাহফুজুল হক ও মামুনুল হকরা প্রতিষ্ঠানটি নিয়ন্ত্রণে রাখেন।

সর্বশেষ ১৮ মে বাংলাদেশ ওয়াকফ প্রশাসন জামি’আ রাহমানিয়া আরাবিয়া সাত মসজিদ মাদরাসা ওয়াকফ এস্টেট পরিচালনার জন্য ২১ সদস্যের একটি পরিচালনা কমিটি অনুমোদন দেয়। তিন বছরের জন্য এ কমিটি অনুমোদন দেওয়া হয়। ২৯ জুন বাংলাদেশ ওয়াকফ প্রশাসন জামি’আ রাহমানিয়া আরাবিয়া সাত মসজিদ মাদরাসা ওয়াকফ এস্টেটের সম্পত্তি অনুমোদিত কমিটির কাছে বুঝিয়ে দিতে ঢাকার ডিসিকে চিঠি দেয়।

মাদরাসা কমিটির এক সদস্য জানান, মাদরাসা থেকে দখলদার মামুনুল ও মাহফুজুল হকদের উচ্ছেদে ম্যাজিস্ট্রেট আসবেন বলে শুনেছি। তবে তারা (মাওলানা মাহফুজুল হক ও তার পরিবার) আগেই মাদরাসা ছেড়েছেন। আশা করছি, মাদরাসার ভবনটি কমিটির কাছে হস্তান্তর করা হবে।

নিউজ সোর্স : মাহফুজুল-মামুনুল থেকে ওয়াকফ এস্টেটের মাদরাসা দখলমুক্ত

Leave A Reply

Your email address will not be published.