কুড়িগ্রামের কচাকাটা বাজার সড়কের বেহাল দশা, মাছ চাষ করে প্রতিবাদ

- Advertisement -

কুড়িগ্রাম প্রতিনিধি:
কুড়িগ্রামের নাগেশ্বরী উপজেলার কেদার ইউনিয়নের কচাকাটা বাজার সড়কের বেহাল দশা। সামান্য বৃষ্টিপাতে বড় বড় গর্তে পানি জমে পুকুর সদৃশ্য হয়ে যায় সড়কটি এবং কাদায় একাকার সড়কটি চলাচলে চরম দূর্ভোগ পোহাতে হয় পথচারীদের।

এদিকে কয়েক দিনের বৃষ্টিপাতে খানাখন্দে ভরা সড়কটিতে যানবাহন চলাচল বন্ধ রয়েছে। প্রতিবাদে সড়কে খালে মাছ চাষের প্রতিকি প্রতিবাদ করেছে এলাকাবাসী।

বুধবার সকালে স্থানীয়রা সড়কটির কাঁদা মাটিতে ধানের চারা এবং খালে মাছ ছেড়ে দিয়ে “এখানে ধান এবং মাছ চাষ করা হয়” সাইনবোর্ড টানিয়ে দেয়।

কচাকাটা বাসস্ট্যান্ড হতে বাজারগামী সড়কটির এমন অবস্থায় ভোগান্তিতে পড়তে হয়েছে কচাকাটা বাজারের কয়েক শতাধিক ব্যবসায়ী, কচাকাকাটা বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়ের ৫ শতাধিক শিক্ষার্থী, কচাকাটা উচ্চ বিদ্যালয়ের ৬ শতাধিক শিক্ষার্থী, কচাকাটা কিন্ডার গার্টেনের ৫ শতাধিক শিক্ষার্থীসহ বাজারে আসা হাজার হাজার সাধারণ মানুষকে। দীর্ঘদিন ধরে এমন দূর্ভোগ পোহাচ্ছে এই সড়কে পথচারীরা।

কচাকাটা বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়ের শিক্ষক ও শিক্ষার্থীরা বলেন-তাদের বিদ্যালয়ে যাতায়াতের একমাত্র রাস্তা এটি। যেটি বছরের পর বছর কাঁদা পানিতে ভরে থাকে ফলে তাদের চরম দূর্ভোগ পোহাতে হয়।

ব্যবসায়ী আবু সিদ্দিক, আব্দুর রশিদ, মিজানুর রহমান, রাহিমুল, আলী হোসেন, মজনুর রহমানসহ অনেকে জানান, রাস্তার এমন পরিস্থিতিতে তাদের ব্যবসায় চরম ক্ষতি হচ্ছে। ভারী যানবাহন না চলায় তাদের বাড়তি ভারা গুনতে হচ্ছে।

এ ব্যাপারে কেদার ইউনিয়ন চেয়াম্যান মাহবুবুর রমান জানান, রাস্তাটির কিছু অংশ ইউনিয়ন পরিষদের তত্ত্বাবধানে পাকাকরণ করা হয়েছে। আরো কিছু অংশ পাকা করণের চেষ্টা চলছে।

নাগেশ্বরী উপজেলা প্রকৌশলী বাদশা আলমগীর বলেন, সড়কটি সরকারের কোন বিভাগের তালিকায় নেই। ফলে নিয়মিত বরাদ্দ দেয়া সম্ভব হয় না। স্থানীয় চেয়ারম্যানের সহায়তায় এডিপির বরাদ্দে কিছুটা অংশ পাকাকরণ করা হয়েছে। এডিপি এবং এলজিএসপির বরাদ্দে বাকিটা পাকাকরণের জন্য চেয়ারম্যানকে বলা হয়েছে।

Get real time updates directly on you device, subscribe now.

Leave A Reply

Your email address will not be published.