করোনা থেকে মুক্তি ও মুসলিম বিশ্বের শান্তি ও সমৃদ্ধি কামনা

করোনা থেকে মুক্তি ও মুসলিম বিশ্বের শান্তি ও সমৃদ্ধি কামনা

করোনা মহামারি থেকে বিশ্ব মানবতার মুক্তি এবং মুসলিম বিশ্বের শান্তি ও সমৃদ্ধি কামনার মধ্যদিয়ে সারা আমেরিকায় মঙ্গলবার পবিত্র ঈদুল আজহা উদযাপিত হলো। বাংলাদেশিদের পরিচালিত দেড় শতাধিক মসজিদসহ ৩ হাজারের অধিক মসজিদের উদ্যোগে কোথাও কোথাও খোলা মাঠে অথবা বড় অডিটরিয়ামেও ঈদের নামাজ অনুষ্ঠিত হয় স্বাস্থ্যবিধি মেনে। করোনার লকডাউনে থাকায় গত বছরের ঈদুল ফিতর এবং ঈদুল আজহার নামাজ অনুষ্ঠিত হতে পারেনি। তবে এবারের ঈদুল ফিতরের মত ঈদুল জিহার নামাজেও শিশু-কিশোরের উপস্থিতি ছিল না বললেই চলে। কারণ, ১২ বছরের কম বয়সীরা এখনও টিকা নেয়ার সুযোগ পায়নি। 

সিডিসির তথ্য অনুযায়ী, যারা টিকা নেয়নি তারাই সংক্রমিত হচ্ছে ডেল্টায়। উল্লেখ্য, করোনার আতঙ্ক সত্বেও ২০ হাজারের অধিক প্রবাসী ঈদ উদযাপনের জন্যে বাংলাদেশে গেছেন। আমেরিকার বিভিন্ন সিটিতে লক্ষাধিক কুরবানী প্রদানের সংবাদ জানা গেছে।

এদিকে, নিউইয়র্ক অঞ্চলে এবারও সবচেয়ে বড় ঈদ জামাত হয়েছে কুইন্সে জ্যামাইকা মুসলিম সেন্টারের উদ্যোগে। টমাস এডিসন হাই স্কুল মাঠের এ জামাতে ১০ হাজারের অধিক মুসল্লির সমাগম ঘটে। করোনার পূর্ববর্তী ঈদের ন্যায় এবারও মূলধারার রাজনীতিক এবং স্টেট ও সিটি প্রশাসনের বিভিন্ন পর্যায়ের কর্মকর্তারা এসে ঈদ মুবারক জানিয়েছেন। এরমধ্যে ছিলেন নিউইয়র্ক সিটির ডেমোক্রেটিক পার্টির মেয়র প্রার্থী এরিক অ্যাডামস, নিউইয়র্ক স্টেট সিনেটর জন ল্যু, স্টেট অ্যাসেম্বলিম্যান ডেভিড ওয়েপ্রিন, কুইন্স ডিস্ট্রিক্ট অ্যাটর্নি মেলিন্ডা কাটজ, সিটি কাউন্সিলম্যান (ডিস্ট্রিক্ট-২৪) জেমস এফ জিনারো, কুইন্স কাউন্টির সিভিল কোর্টের বিচারক পদে ডেমক্র্যাট প্রার্থী অ্যাটর্নি সোমা সাঈদ, কুইন্স বরো প্রেসিডেন্ট প্রার্থী এলিজাবেথ ক্রাউলি, জ্যামাইকা মুসলিম সেন্টারের প্রেসিডেন্ট ড. সিদ্দিকুর রহমান। 

ঈদ জামাত পরিচালনা করেন জ্যামাইকা মুসলিম সেন্টারের সাধারণ সম্পাদক মঞ্জুর আহমদ চৌধুরী। এখানে ইমামতি করেন জেএমসির খতিব ও পেশ ইমাম মাওলানা মির্জা আবু জাফর বেগ। খুৎবা পাঠ করেন ইমাম শামসে আলী।

কুইন্সের এস্টোরিয়ায় আল আমিন মসজিদ, ওজোনপার্কে আল আমান মসজিদ, ব্রুকলীনে বাংলাদেশ মুসলিম সেন্টার এবং ব্রঙ্কসে পার্কচেস্টার এলাকায় বড় ধরনের ঈদ জামাত অনুষ্ঠিত হয়েছে। নামাজ শেষে অনেকে ছুটেন পশু খামারে। দূরবর্তী স্থানের এসব খামারে গিয়ে পছন্দের গরু, খাশী অথবা ভেড়া ক্রয় করেন। ভার্জিনিয়া, ফ্লোরিডা, টেক্সাস, ক্যালিফোর্নিয়া, মিশিগান, জর্জিয়ার বিভিন্ন স্থানে খোলা ময়দানে পশু কুরবানীর পর নারী-পুরুষ মিলে মাংস প্রসেসিং করেন। 

এদিকে মিশিগান থেকে সংবাদদাতা আশিক রহমান জানিয়েছেন, স্বাস্থ্যবিধি মেনে মিশিগানেও ঈদুল আজহার জামাত অনুষ্ঠিত হয়েছে। মিশিগানে হ্যামট্রামক, ডেট্রয়েট, ওয়ারেন, ট্রয়,স্টার্লিংহাইটসসহ বিভিন্ন সিটিতে বাংলাদেশিদের পরিচালিত মসজিদে এবং পার্কে ঈদের জামাত অনুষ্ঠিত হয়। বাংলাদেশি ছাড়াও আরব ও আফ্রিকান মুসলমানেরা নামাজ আদায় করেন। ডেট্রয়েট ও হ্যামট্রামক সিটির বায়তুল মোকারম, আল ফালাহ, আল ইসলাহ, মসজিদুন নুর, বায়তুল মামুর সহ অধিকাংশ মসজিদের ভেতর অথবা খোলা আকাশের নীচে স্বাস্থ্যবিধি মেনে মুসল্লিরা নামাজ আদায় করেন।  

বিডি-প্রতিদিন/সালাহ উদ্দীন

 

নিউজ সোর্স : করোনা থেকে মুক্তি ও মুসলিম বিশ্বের শান্তি ও সমৃদ্ধি কামনা

Leave A Reply

Your email address will not be published.