ঈদের দিন তারকারা







বছর ঘুরে আবার এলো ঈদ। ঈদ মানেই বাড়তি আনন্দ। ঈদে আপনজনের কাছে ছুটে যান সবাই। তারকারাও এর ব্যতিক্রম নয়। জনপ্রিয় কয়েকজন তারকার সঙ্গে ঈদ উদযাপন নিয়ে কথা বলেছে দ্য ডেইলি স্টারের প্রতিবেদক।

জনপ্রিয় অভিনেতা জাহিদ হাসান বলেন, ‘বেশিরভাগ ঈদই আমি সিরাজগঞ্জ শহরে নিজ বাড়িতে কাটিয়েছি। সেখানেই আমি ঈদ করি। এমনও হয়েছে এক দিন আগে চাঁদ রাতে বাড়ির উদ্দেশ্যে রওনা হয়েছি। কিন্তু, এবার ঈদে ঢাকায় থাকছি। স্ত্রী ও দুই সন্তানকে নিয়ে বাসায় ঈদ করব।’

তিনি আরও বলেন, ‘করোনার প্রকোপ বেড়েছে। ঈদের একদিন পরই লকডাউন শুরু হবে। সেজন্যই ঢাকায় থাকার সিদ্ধান্ত নিয়েছি।’

২০ বছরের ক্যারিয়ারে অনেক ঈদই দেশের বাইরে কাটিয়েছেন ঢাকাই সিনেমার জনপ্রিয় নায়ক শাকিব খান। দ্য ডেইলি স্টারকে তিনি বলেন, ‘শুটিংয়ের এর প্রয়োজনে অনেক ঈদই দেশের বাইরে কাটাতে হয়েছে। কখনও দেখা গেছে ঈদের পরের দিনই দেশের বাইরে শো করার জন্য উড়াল দিতে হয়েছে। এবার এমন কিছু হচ্ছে না। ঢাকায় নিজের বাসায়ই থাকছি। ঈদের দিন পুরোটা সময়ই ঘরে বসে কাটাবো।’

ভক্তদের উদ্দেশ্যে তিনি বলেন, ‘আপনারা যারা সমাজে বিত্তবান, যারা কোরবানি দেবেন, তাদের প্রতি আমার অনুরোধ আপনারা ফ্রিজে মাংস জমিয়ে না রেখে গরিবদের মধ্যে বিলিয়ে দিন। আপনার আশপাশে যারা দরিদ্র, যাদের কোরবানি দেওয়ার সামর্থ্য নেই তাদের প্রতি ভালোবাসার হাত বাড়িয়ে দিন।’ 

মৌসুমী ও ওমর সানী তারকা দম্পতির জন্য এবারের ঈদটা বেশ ভিন্ন। একমাত্র ছেলে ও পুত্রবধূর সঙ্গে বাসায় ঈদ কাটাবেন তারা।

মৌসুমী বলেন, ‘গেল ঈদটা করোনার জন্য ভালো কাটেনি। সৃষ্টিকর্তার কৃপায় এবারের ঈদ অনেক ভালো কাটবে আশা করছি। ঈদে কোথাও যাব না। বাসায়ই পুরো পরিবার মিলে আনন্দ করব। নতুন বউমাকে নিয়ে ঈদ করব।’

চিত্রনায়ক ফেরদৌস বলেন, ‘আগের বছর ঈদুল আযহার দিনে গরুর মাংস দিয়ে একটা স্পেশাল ডিস রান্না করেছিলাম। এবারও সেটা করার ইচ্ছে আছে। ঈদের দিন রান্না করব।’

ভক্তদের উদ্দেশ্যে তিনি বলেন, ‘প্লিজ সবাই মাস্ক পরবেন। আগে নিজের জীবনের নিরাপত্তা, তারপর আনন্দ। মাস্ক পরেও আনন্দ করা যাবে।’

টিভি নাটকের জনপ্রিয় অভিনেতা অপূর্ব ঈদের সময়টা তার উত্তরার বাসায় পরিবারের সবার সঙ্গে কাটাবেন। ঈদে দূরে কোথাও যাওয়ার পরিকল্পনা নেই।

অপূর্ব বলেন, ‘বাসায় বসে নাটক দেখব এবং খুব কাছের বন্ধুরা এলে তাদের সঙ্গে আড্ডা দেব। এবারের ঈদে আমার সাত থেকে আটটি নাটক প্রচার হবে। নিজের অভিনীত নাটকের পাশাপাশি অন্য শিল্পীদের নাটকও দেখবো।’

মেয়ের সঙ্গে বাসায় ঈদ কাটাবেন চিত্রনায়িকা পূর্ণিমা। মেয়েকে ঈদের দিন সকালবেলা সুন্দর করে সাজিয়ে, নতুন পোশাক পরিয়ে দেবেন। রান্না করবেন। তিনি বলেন, ‘করোনার সময় তাই নিজ বাসায় বসে যতটুকু উৎযাপন করা যায় ততটুকুই করবো। ভক্তদের ও দেশের মানুষের কাছে অনুরোধ, প্লিজ আপনারা স্বাস্থ্যবিধি মেনে চলুন।’

ঈদের দিন রান্নার করতে ভালোবাসেন সুমাইয়া শিমু। তিনি বলেন, ‘ঈদের দিন পায়েস রান্না করবো। গরুর মাংস দিয়ে কয়েক পদের রান্না করবো। ঈদের দিন রাতে মাসহ পরিবারের সবাই আমার বাসায় আসবেন। রাতে পরিবারের সবাই মিলে একদিনের জন্য গাজীপুরে ঘুরতে যাবো। লকডাউন শুরু হবে তাই পরের দিন রাতেই ঢাকায় ফিরে আসবো।’

আজিজুল হাকিমের শারীরিক অবস্থা এখন আগের চেয়ে অনেকটাই ভালো। ঈদে তিনি ঢাকার নিজ বাসায়ই থাকবেন। তিনি বলেন, ‘কন্যা ও জামাতা ঈদের ছুটিতে বাসায় এসেছে। খুব কাছের মানুষদের নিয়ে ঘরে বসেই ঈদের ছুটির কয়েকটি দিন নিজের মতো কাটাবো। সবার দোয়া ও ভালোবাসায় এখন অনেক ভালো আছি। ঈদ মানেই আনন্দ। তারপরও সবাইকে অনুরোধ করবো, স্বাস্থ্যবিধি মেনে আনন্দ করুন।’

ঈদের পরের দিন পরিবার নিয়ে শ্রীমঙ্গল যেতে চেয়েছিলেন অভিনেতা ও নাট্যপরিচালক সালাহউদ্দিন লাভলু। কিন্তু, লকডাউনের কারণে শ্রীমঙ্গল যাওয়ার পরিকল্পনা বাদ দিয়েছেন তিনি।

তিনি বলেন, ‘ঈদে বাসায়ই থাকবো। বছরজুড়ে শুটিং নিয়ে ব্যস্ত থাকি, তাই ঈদের সময়টুকু পরিবারকে দেব। ঈদের দিন রাতে অভিনেতা চঞ্চল চৌধুরী, নাট্যকার বৃন্দাবন দাশ, অভিনেত্রী শাহনাজ খুশি আমার বাসায় আসবেন। তাদের নিয়ে আড্ডা দেবো।’

সোর্স : ঈদের দিন তারকারা

Leave A Reply

Your email address will not be published.