পুঠিয়া থানার ওসির বিরুদ্ধে এজাহারনামা ঘষামাজার অভিযোগ

পুঠিয়া প্রতিনিধি:
রাজশাহীর পুঠিয়া থানার ওসি রেজাউল ইসলামের বিরুদ্ধে এজাহারনামা ঘষামাজা করার অভিযোগ উঠেছে। পরে তা আদালতে উপস্থাপন করেছেন বলে অভিযোগ বাদীর।

এরআগেও পুঠিয়া থানার সাবেক ওসি শাকিল উদ্দিন আহম্মেদের বিরুদ্ধে এজাহার পাল্টে দেওয়ার অভিযোগ করেছিলেন নিগার সুলতানা নামে একটি হত্যা মামলার মামলার বাদী। পরে বিচারিক তদন্তের নির্দেশ দিয়েছিলেন হাইকোর্ট। বিষয়টি নিয়ে এলকায় বেশ চাঞ্চল্য সৃষ্টি হয়েছিল। পরে শাকিল উদ্দিন আহম্মেদকে প্রত্যাহার করে রাজশাহী পুলিশ লাইনে সংযুক্ত করা হয়।

এবার পুঠিয়া থানার ওসি রেজাউল ইসলামের বিরুদ্ধে এজাহার ঘষামাজার অভিযোগ উঠলো।

খোঁজ নিয়ে জানা গেছে- গত ২০ অক্টোবর দুর্গাপুর থানার ভাঙ্গিরপাড়া গ্রামের আকবর আলীর ছেলে বদিউজ্জামনা ও তার স্ত্রী সেলিনা খাতুনকে পুঠিয়ার বানেশ্বর ধানাহাটায় পথ রোধ করে মারধোর করা হয়। এ বিষয়ে পুঠিয়া থানায় ১৩ জনকে আসামী করে মামলা দায়ের করা হয়।

মামলার বাদী গত ৩১ অক্টোবর আদালতে অভিযোগ করেন যে- তার টাইকৃত এজাহারে ২২ অক্টোবর উল্লখ করা ছিল। আসামী দ্বারা প্রভাবিত হয়ে পুঠিয়া থানার ওসি মামলাটি ২২ অক্টোবরের তারিখ ঘসামাজা করে ২৩ অক্টোবর লিখে মামলাটি রেকর্ড করেন।

এ ব্যাপারে পুঠিয়া থানার ওসি রেজাউল ইসলাম ঘষাজামার বিষয়টি অস্বীকার করে বলেন- বাদী যেভাবে মামলা দিয়েছিল আমরা মামলাটি সেভাবে আদালতে পাঠিয়েছি। এখানে কোন তারিখ পরিবর্তন করা হয়নি।

Get real time updates directly on you device, subscribe now.

Leave A Reply

Your email address will not be published.